চলতি সেমিস্টারে ভর্তির সাথেই ল্যাপটপ পাচ্ছেন ড্যাফোডিলের শিক্ষার্থীরা

চলতি সেমিস্টারে ভর্তির সাথেই ল্যাপটপ পাচ্ছেন ড্যাফোডিলের শিক্ষার্থীরা

  • ক্যাম্পাস ডেস্ক

কোভিড-১৯ মহামারীর এই দুর্যোগকালে বাড়িতে বসে নির্বিঘ্নে শিক্ষাকার্যক্রম চালিয়ে নেওয়ার সুবিধার্থে ফল ২০২০ সেমিস্টারে ভর্তি হওয়ার সাথে সাথেই প্রতিটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যে ল্যাপটপ তুলে দেওয়ার কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। বিগত দিনগুলিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাধারণতঃ ভর্তির এক বছর পর ‘‘একজন শিক্ষার্থী একটি ল্যাপটপ” প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে ল্যাপটপ প্রদান করে আসছিল। বর্তমান কোভিড-১৯ এর এই সংকটময় পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভর্তির সাথে সাথেই শিক্ষার্থীদের হাতে ল্যাপটপ তুলে দেওয়ার কর্মসূচি নিয়েছে যাতে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে বসেই অনলাইনে ক্লাস কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারে।

তথ্য প্রযুক্তির ক্রমবিকাশমান ধারার সাথে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলতে এবং প্রতিযোগীতামূলক চাকরির বাজারে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২০১০ সালের সামার সেমিস্টার থেকেই ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি প্রতিটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যে ল্যাপটপ তুলে দেয়ার এ কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। এ প্রকল্পের ফলে এটা দৃশ্যমান হচ্ছে যে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেধা ও তথ্য প্রযুক্তিজ্ঞানে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চাকরীর বাজারে প্রতিযোগিতায় অনেক এগিয়ে যাচ্ছে।

২০১০ সালে তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ প্রকল্প উদ্বোধন করেন যা শুধু বাংলাদেশের জন্য নয়, সমগ্র বিশ্বে একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ হিসেবে বিবেচিত এবং শুধুমাত্র ড্যাফোডিল পরিবারের তথ্যপ্রযুক্তিগত সামর্থের কারণে সফল বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে। এ প্রকল্প সরকারের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ বিনির্মাণেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত এ ল্যাপটপ প্রতিটি শিক্ষার্থীকে তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ এবং দক্ষ করে বাস্তব ও কর্মমুখী জীবনের উপযোগী করে গড়ে তুলতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রায় ৪০ হাজার ল্যাপটপ বিতরণ সম্পন্ন করেছে।    

Sharing is caring!

Leave a Comment